Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ, অনাহারে মৃত্যু হতে পারে ১ কোটি মুসলিমের

Image Credits: Der Spiegel

রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের প্রভাব পড়েছে সারা বিশ্বে। জ্বালানি তেল ও ভোজ্য তেলের দাম বৃদ্ধি তো ছিলই। এবার যুদ্ধের কারণে আমদানি ও রপ্তানি বিপর্যস্ত হওয়ায় খাদ্য সংকটে ভুগছে বিশ্বের একাধিক দেশ। এর মধ্যে মধ্য প্রাচ্য ও আফ্রিকার একাধিক দেশ রয়েছে। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে খুব শীঘ্রই অনাহারে দিন কাটাতে হতে পারে ওই দেশগুলির জনগণকে।

আফ্রিকার সোমালিয়া, সুদান, ইথিওপিয়ার মতো দেশগুলি পুরোপুরি রাশিয়া ও ইউক্রেন থেকে আমদানি করা গমের উপরে নির্ভরশীল। কিন্তু রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের কারণে আমেরিকা নিষেধাজ্ঞা চাপিয়েছে রাশিয়ার উপরে। ফলে রাশিয়া থেকে গম আমদানি করতে পারছে না দেশগুলি। অন্যদিকে ইউক্রেনের জাহাজের পথ আটকাচ্ছে রাশিয়ার নৌ বাহিনী। এরই ফলশ্রুতিতে চরম খাদ্য সংকটে দিন কাটাচ্ছে ওই দেশগুলির বাসিন্দারা।

উল্লেখ্য, সোমালিয়া, সুদান ও ইথিওপিয়ার জনসংখ্যার বেশিরভাগই মুসলিম ধর্মালম্বী। খাদ্য সংকটের পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে চরম সংকটে দিন কাটাচ্ছে দেশগুলির বাসিন্দারা। ইতিমধ্যেই খাদ্যের অভাবে ১০ লক্ষ শিশু অপুষ্টিতে ভুগছে। কয়েক হাজার শিশু ও কিশোরের মৃত্যু হয়েছে দক্ষিণ সুদানে। তবে এই সংকট কাটাতে যথাসাধ্য চেষ্টা করছে রাষ্ট্র সংঘের WFP(World Food Program)। WFP কয়েক দফায় খাদ্য শস্য পাঠিয়েছে দেশটিতে। তবে তা যথেষ্ট নয়।

মধ্য প্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশও খাদ্য সংকটে ভুগছে। লেবানন, জর্ডনের মতো দেশে খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। এই দেশ দুটি মূলত রাশিয়া ও ইউক্রেনের গম ও ভুট্টার উপরে নির্ভরশীল। কিন্তু যুদ্ধের কারণে আমদানি ব্যাহত হয়েছে। আর যার ফলেই দেশে খাদ্য সংকট। ইতিমধ্যেই রুটি ও গম থেকে তৈরি হওয়া খাদ্যের দাম বেড়ে গিয়েছে কয়েক গুণ। এদিকে মজুত থাকা গম শেষ হওয়ার পথে। খুব শীঘ্রই পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে খাদ্য সংকট চরম আকার ধারণ করতে পারে।

আর এই পরিস্থিতি আঁচ করে শঙ্কিত WFP। WFP জানিয়েছে যে ২০২৩ সালের মধ্যে এশিয়া ও আফ্রিকার একাধিক দেশ চরম খাদ্য সংকটে পড়বে। খাদ্যের অভাব ও দারিদ্রতার কারণে অপুষ্টিজনিত রোগে ভুগে মৃত্যু হবে কয়েক কোটি মানুষের। আর এই তালিকায় লেবানন, জর্ডন, সোমালিয়া, দক্ষিণ সুদান, ইথিওপিয়ার মতো দেশগুলি রয়েছে। আর তাই গম আমদানিতে যেন রাশিয়া বাধা না দেয়, তার জন্য আবেদন জানিয়েছে WFP। পাশাপাশি উন্নত দেশগুলি যেন খাদ্য সংকটে থাকা দেশগুলির দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়, সে আবেদনও জানিয়েছে WFP।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom