Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

গুজরাট: মুসলিম স্ত্রী ও তাঁর পরিবার জোর করে গরুর মাংস খাইয়েছিলো, আত্মঘাতী রোহিত সিং

Image credits: Ahmadabad Mirror

ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন এক মুসলিম তরুণীকে। ভাড়া ঘরে পেতেছিলেন সংসার। কিন্তু সেই স্ত্রীই তাঁর উপরে মানসিক অত্যাচার করতো। এমনকি স্ত্রী ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা জোর করে গরুর মাংস খাইয়েছিলো তাকে। আর তাতেই আত্মহত্যা করলেন হিন্দু যুবক রোহিত সিং। ঘটনা গুজরাটের সুরাতের।

জানা গিয়েছে, রোহিত সিং আদতে উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা। সে কর্মসূত্রে সুরাতের উধনা এলাকার প্যাটেল নগরে থাকতেন। সেখানেই তাঁর সঙ্গে পরিচয় হয় সোনম আলী। সোনম আলীও উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা এবং রোহিতের ভাড়া বাড়ির কাছেই ভাই মুখতার জাকির আলীর সঙ্গে থাকতেন। সেখানেই থাকাকালীন দুজনের পরিচয় এবং কয়েকমাস আগেই দুজনে বিয়ে করেন। 

গত জুন মাসের ২৭ তারিখে নিজের ভাড়া বাড়িতে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন রোহিত সিং। ওইদিন উধনা পুলিশ একটি অপঘাতে মৃত্যুর মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করে। রোহিতের স্ত্রীকে জেরা করলেও ঘটনার সম্বন্ধে কোনও তথ্য না পাওয়ায় এটিকে আত্মহত্যা বলেই ধরে নিয়েছিল পুলিশ।

এদিকে রোহিতের মৃত্যুর খবর তাঁর পরিবারকে জানায়নি সোনম আলী। এমনকি রোহিত হিন্দু হওয়ায় তাঁর মৃতদেহের সৎকার করতে অস্বীকার করে সোনম আলী। শেষে রোহিত যে বাড়িতে ভাড়া থাকতেন, সেই ভাড়াবাড়ির মালিক রোহিতের দেহ হিন্দু রীতি মেনে সৎকার করেন।

রোহিতের মৃত্যুর প্রায় দুই মাস পরে এক বন্ধুর মারফৎ ছেলের মৃত্যুর কথা জানতে পারেন তাঁর মা বীণা দেবী। তারপরই গুজরাটে আসেন তাঁরা। ওই বন্ধুর দাবি, রোহিত তাঁর ফেসবুক প্রোফাইলে একটি সুইসাইড নোট পোস্ট করেছিলেন। সেই লেখায় রোহিত তাঁর মৃত্যুর জন্য স্ত্রী সোনম আলী এবং সোনমের ভাই মুখতার জাকির আলীকে দায়ী করেছেন। রোহিত লিখেছেন যে তাকে জোর করে গরুর মাংস খাওয়ানো হয়েছে। এমনকি তাকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে। তাই সে আত্মহত্যা করছে। 

একথা জানার পরই থানায় সোনম আলী ও তাঁর ভাই মুখতারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বীণা দেবী। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে সোনম আলী ও তাঁর ভাইকে ডেকে থানায় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। আপাতত কাউকে গ্রেপ্তার না করা হলেও তদন্তের স্বার্থে অভিযুক্তদের গুজরাট ছেড়ে না যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি দুই মাস পরে ফেসবুকে সুইসাইড নোট খুঁজে পাওয়ার বিষয়টিও পুলিশ গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখছে। 

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom