Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

সাধু ঢুকে পড়েছিলেন মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায়, গেরুয়া পোশাক দেখেই চললো বেধড়ক মারধর; গ্রেপ্তার ৬

Image: OpIndia

বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে জন্মাষ্টমী উৎসবের জন্য সাহায্য সংগ্রহ করছিলেন এক সাধু। জানতেন না যে সামনের এলাকাটি মুসলিম অধ্যুষিত এলাকা। ঢুকে পড়ে বাড়ি বাড়ি ঘুরে জন্মাষ্টমী উৎসব উপলক্ষে সাহায্য চাইতেই নেমে এলো বিপদ। গেরুয়া পোশাক দেখেই ক্ষেপে গেলেন একদল যুবক। ঘরে আটকে রেখে চললো বেধড়ক মার। ছিনিয়ে নেওয়া হলো সঙ্গে থাকা সব অর্থ। পরে খবর পেয়ে ওই সাধুক উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। পরে ঘটনায় জড়িত ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত ২১শে আগস্ট ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের সীতাপুরের কারসা গ্রামে।

জানা গিয়েছে, ওইদিন সাধু জওহর গিরি জন্মাষ্টমী উৎসব উপলক্ষে বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে সাহায্য সংগ্রহ করছিলেন। এভাবে তিনি অনেকগুলি গ্রামে ঘুরে ঘুরে অর্থ সংগ্রহ করেন। তিনি ওই এলাকার বাসিন্দা না হওয়ায় জানতেন না যে কারসা গ্রামটি মুসলিম অধ্যুষিত। সরল মনে ঢুকে পড়েন ওই গ্রামে। কয়েকটা বাড়িতে ঘোরার পরই তাকে একদল যুবক ঘিরে ধরেন। রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মারধর করা হয় তাকে। এরপর একটি ঘরে আটকে রেখে চলে মারধর। তাঁর কাছে থাকা ₹ ৩৫,০০০ টাকা ছিনিয়ে নেয় তাঁরা।

কয়েক ঘন্টা পর কোনওভাবে এই ঘটনার খবর পৌঁছায় পাশের গ্রামের হিন্দুদের কাছে। তাঁরাই পুলিশে খবর দেন। পরে আশেপাশের থানা থেকে বিশাল বাহিনী নিয়ে ওই গ্রামে পৌঁছায় সীতাপুর পুলিশ। পুলিশকে আসতে দেখে ওই সাধুকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। পরে ওই সাধুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। 

পরে এই ঘটনায় পুলিশ মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করে। ঘটনায় জড়িত এখনও পর্যন্ত ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশের মতে ধৃতদের মধ্যে প্রধান অভিযুক্ত হলো গ্রামের আসগরের পুত্র লখাটি। সে ওই সাধুকে ছেলেধরা অপবাদ দিয়ে অন্য যুবকদের ডেকে এনেছিল। তারপর ওই সাধুকে আটকে রেখে চলে মারধর। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হলেও আরও অনেক অভিযুক্ত পলাতক। তাদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom