Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

শান্ত, ভদ্র ও ধার্মিক ছেলেটা জঙ্গি? অবাক আল-কায়দা জঙ্গি আব্দুর রকিবের গ্রাম

ছবি: বামে আব্দুর রকিব; ডানে পিতা রফিউদ্দিন

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর ব্লকের উদয় গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত আউশা গ্রামের বাসিন্দা রফিউদ্দিন সরকার। গ্রামের মসজিদের পাশেই বাড়ি। পেশায় কৃষক রফিউদ্দিনের তিন সন্তানের মধ্যে রকিব বড়ো। গ্রামের সবার কাছে সে শান্ত ও ভদ্র হিসেবেই পরিচিত ছিল। কিন্তু সেই ছেলেই যুক্ত আল-কায়দার সঙ্গে, এটা বিশ্বাস করতে পারছেন না গ্রামের অনেকেই।

গ্রামবাসীরা জানাচ্ছেন, রকিব সরকার কিছুদিন আগেই বাড়ি এসেছিল। তাঁর স্ত্রী এক সন্তানের জন্ম দেন। তারপর গত ২রা আগস্ট কলকাতা যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয় সে। এরপরে আর তেমন কথা হয়নি। তারপরই বুধবার খবর পান যে রকিবকে জঙ্গি যোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আর তারপর থেকেই প্রতিবেশীদের ভিড় লেগে রয়েছে বাড়িতে। 

রকিবের মা আলিমন বিবি পেশায় অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী। তাঁর কথায়, ও খুব ভদ্র। আমার ছেলে এমন কাজ করতে পারেনা। একই সুর রকিবের পিতার কথায়। বলেন, আমার ছেলে ধার্মিক ও শান্ত প্রকৃতির। কলকাতা যাওয়ার কথা বলে কেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় গেল, আমি জানিনা। আমার সন্দেহ যে আমার ছেলেকে কেউ ফাঁসিয়েছে। 

এদিকে রকিবের গ্রেপ্তারের খবর শুনে অবাক গ্রামের বাসিন্দারা। আশেপাশের জটলাতে আলোচনায় চলছে রকিবের গ্রেপ্তারি নিয়ে আলোচনা। যদিও রকিবের বিষয় নিয়ে খুব একটা মুখ খুলতে রাজি নয় কেউই। 

তবে গোয়েন্দারা বলছেন অন্য কথা। গ্রামের মানুষের কাছে শান্ত ভদ্র ও ধার্মিক স্বভাবের হলেও তলে তলে জিহাদের খাতায় নাম লিখিয়েছিলো রকিব। ছেলে যে জিহাদি, তা ঘুণাক্ষরেও জানতে পারেনি রকিবের পিতা কিংবা পরিবারের কেউই। বিভিন্ন জেলায় ঘুরে মুসলিম যুবকদের মগজধোলাই করার চেষ্টা করতো। মুসলিম যুবকদের জিহাদ করতে উদ্বুদ্ধ করতো। বাংলাদেশ ও অন্য রাজ্য থেকে আসা আল-কায়দার জিহাদিদের নিরাপদ আশ্রয়ের ব্যবস্থা করতো সে। আপাতত সে কী কারণে শাসনের খড়িবাড়ি এলাকায় এসেছিল, তা জানার চেষ্টা করছেন গোয়েন্দারা।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom