Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

পরলোকগমন করলেন শ্রী রাম মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ খুঁজে বের করা প্রত্নতাত্ত্বিক ব্রজ বাসী লাল


১০১ বছর বয়সে পরলোকগমন করলেন প্রত্নতাত্ত্বিক ব্রজ বাসী লাল। ১৯২১ খ্রিস্টাব্দে জন্মগ্রহণ করা ব্রজ বাসী লাল দীর্ঘদিন আর্কিওলজিকাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া(ASI)-এর ডাইরেক্টর জেনারেল হিসেবে কাজ করেছেন। পাশাপাশি “The Indian Institute of Advanced Studies”-এ তিনি দীর্ঘদিন ডাইরেক্টর পদে ছিলেন। 

আজ নিজ বাসভবনে তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর মৃত্যুতে বিজেপি নেতা ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি টুইট করে শোকপ্রকাশ করেছেন। সেই সঙ্গে তাঁর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

উল্লেখ্য, বি বি লাল ১৯৬৮ থেকে ১৯৭২ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত ASI-এর ডাইরেক্টর ছিলেন। তাঁর সময়ে আদালতের নির্দেশে অযোধ্যায় শ্রী রামজন্মভূমি স্থলে খনন শুরু হয়। খননে প্রাচীন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ থেকে শুরু করে অন্যান্য প্রাচীন নিদর্শন উঠে আসে। পরীক্ষা করে পরে জানা যায় যে ঐ স্থানের প্রাচীনত্ব। আর এই আবিষ্কার পরবর্তী সময়ে উল্লেখযোগ্য প্রমান হিসেবে উঠে আসে। 

ASI থেকে অবসর নেওয়ার পরেও থেমে ছিলেন না তিনি। রামায়ণ নিয়ে গবেষণা করেছেন দীর্ঘদিন। রামায়ণে উল্লিখিত প্রাচীন স্থানগুলি, যেখানে যেখানে ভগবান শ্রী রামের পদধূলি পড়েছিল, সেই সব স্থান খুঁজে বের করা এবং সেই সব ঐতিহাসিক স্থানের রক্ষনাবেক্ষনের কাজে সমর্পিত ছিলেন তিনি। 

প্রসঙ্গত, অতীতে শ্রী রাম মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ আবিষ্কার নিয়ে বি বি লালের একটি ইন্টারভিউ যথেষ্ট বিতর্ক সৃষ্টি করেছিল। এক ইন্টারভিউতে তিনি বলেছিলেন, ‛বাবরি মসজিদের দক্ষিণ দিকে আমরা খনন শুরু করি। কিছুটা খোঁড়াখুঁড়ি করার পর প্রাচীন মন্দিরের পিলার দেখতে পাই। আমরা পরীক্ষা করে নিশ্চিত হই যে এটি প্রাচীন মন্দিরের পিলার। এছাড়াও প্রাচীন মন্দিরের অন্যান্য জিনিসপত্র খুঁজে পাই। কিন্তু তা টেকনিক্যাল কমিটিকে জানানোর পরই আমাদের খনন কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।’ এই ঘটনার ১০-১২ বছর পরে পুনরায় খনন কাজ শুরু হয়। তবে ততদিনে শ্রী রাম মন্দিরের পক্ষে যথেষ্ট জনমত গড়ে উঠেছিল সারা দেশে। 


Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom