Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

কেরালা জুড়ে তান্ডব PFI-এর; RSS অফিসে বোমা, বাস-গাড়ি ভাঙচুর এবং পাথর বৃষ্টি

Image Credits: ANI

ইসলামিক কট্টরপন্থী সংগঠন পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া(PFI) তাদের সদস্যদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে দেশজুড়ে হরতাল-বিক্ষোভের ডাক দিয়েছিল। আর তার সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়লো কেরালাতে। পাথরবাজি, বোমা ছোড়া, বাস ও গাড়ি ভাঙচুর করার ঘটনা ঘটলো। রীতিমতো বেশ কিছু এলাকায় তান্ডব চালালো PFI সদস্যরা। 

RSS অফিসে পড়লো পেট্রোল বোমা

খবর অনুযায়ী, কয়েকজন PFI সদস্য কান্নুরের মত্তানুরে থাকা RSS অফিস লক্ষ্য করে পেট্রোল বোমা ছুঁড়ে পালিয়ে যায়। তবে সেই বোমায় তেমন কোনও ক্ষতি হয়নি। পরে খবর দেওয়া হলে RSS অফিস পরিদর্শন করে দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তার করার আশ্বাস দেয় পুলিশ। পাশাপাশি ঘটনার পর থেকে RSS অফিসের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয়েছে পুলিশের তরফে। 

কোল্লামে পাথরবাজি

অন্যদিকে কোল্লাম জেলার পাললিমুক্কু শহরের রাস্তায় বিশাল সংখ্যক PFI সদস্য ও সমর্থক বিক্ষোভে যোগ দেন। সেই বিক্ষোভ থেকে সাধারণ জনতা ও দোকানপাট লক্ষ্য করে ব্যাপক পাথরবাজি করে PFI। পরে পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পুলিশবাহিনী যায়। কিন্তু উন্মত্ত PFI সদস্য ও সমর্থকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ব্যাপক পাথর ছুঁড়তে থাকে। কয়েকজন পুলিসকর্মীকে ঘিরে ধরে মারধর করে তাঁরা। খবর অনুযায়ী, PFI সদস্যদের মারে দুই জন পুলিশকর্মী আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

কেরালা জুড়ে ভাঙচুর করা হলো সরকারি বাস

PFI-এর ডাকা বিক্ষোভে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কেরালা স্টেট ট্রান্সপোর্ট করপোরেশন(KSRTC) পরিচালিত বাস। কেরালার প্রায় সব জেলায় KSRTC-আর বাসে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। ওয়েনাড, কোল্লাম, কোঝিকোড, কোচি, আলাপুঝা জেলায় বাসে হামলা চালায় PFI-এর সদস্য ও সমর্থকরা। বাস লক্ষ্য করে ব্যাপক পাথর ছোঁড়া হয়। পাথর ছোঁড়ার ফলে বাসগুলি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

কেরালার রাজধানী তিরুবনন্তপুরমের বেশ কয়েকটি এলাকায় PFI সদস্যদের তান্ডব দেখা গিয়েছে। বেশ কিছু জায়গায় পুলিশ PFI সদস্যদের নিয়ন্ত্রণ করলেও পুনথুরা এলাকায় বেশ কয়েকটি অটো রিকশা এবং গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।

সব মিলিয়ে পুরো কেরালা জুড়েই চললো PFI-এর তান্ডব। এমন পরিস্থিতি হতে পারে আঁচ করেই মুসলিম অধ্যুষিত অঞ্চলগুলিতে বাড়তি পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল। কিন্তু উন্মত্ত PFI সদস্য ও সমর্থকদের নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হয় পুলিশ। বেশ কয়েকটি স্থানে আক্রান্ত হয় পুলিশও। ইতিমধ্যে ঘটনায় PFI নেতাদের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা রুজু করেছে কেরালা হাইকোর্ট। 


Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom