Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

মুর্শিদাবাদ: পাওনা টাকা নিয়ে সমস্যা, বন্ধু আক্রমের হাতে খুন হলেন বাপ্পা মন্ডল

ছবি: মৃত বাপ্পা মন্ডল(Credits: Sangbad Partidin)


মুর্শিদাবাদের বহরমপুরের এক যুবককে অপহরণ করে খুনের ঘটনার তদন্তে নেমে এক যুবককে গ্রেপ্তার করলো পুলিশ। ধৃতের নাম আক্রম। পাওনা টাকা নিয়ে সমস্যার জেরেই এই খুন, বলছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, খুন হওয়া যুবকের নাম বাপ্পা মন্ডল। সে বহরমপুর থানার রানিনগর এলাকার বাসিন্দা। তাঁর বেকারির ব্যবসা রয়েছে। গত বুধবার রাতে মোটরবাইক নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় বাপ্পা। পরে অনেক রাতে তাঁর বাবার ফোনে এক ব্যক্তি ফোন করে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করে। বলা হয় যে পাঁচ লাখ টাকা না দিলে বাপ্পাকে খুন করা হবে।

এই কথা শোনার পরই চিন্তায় পড়েন বাপ্পার পিতা। তিনি পুলিশের দ্বারস্থ হন। পুলিশের কথামতো প্রায় দেড় লাখ টাকা নিয়ে অপহরণকারীর দেওয়া ঠিকানার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। যাওয়ার পথে অপহরণকারীর সঙ্গে বারবার ফোনে কথা হয় তাঁর। তাদের কথা অনুযায়ী গভীর রাতে বেলডাঙ্গা অবধি গিয়েছিলেন বাপ্পার পিতা। কিন্তু তারপরই অপহরণকারী ফোন বন্ধ করে দেয়। তারপরই বাড়ি ফিরে আসেন তিনি।

পরের দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সকালে বহরমপুরের বাইপাসের ধারে বাপ্পা মন্ডলের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। তারপরই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নামে পুলিশ।

কর্ণসুবর্ণ এলাকায় অভিযান চালিয়ে খুনের অভিযোগে আক্রম নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। প্রাথমিক জেরায় পুলিশ জানতে পারে যে মৃত বাপ্পার সঙ্গে আক্রমের দীর্ঘদিনের পরিচয়।দুজনের সম্পর্ক ছিল বন্ধুর মতো। সেই সুবাদে বাপ্পা টাকা ধার নিয়েছিল, দাবি আক্রমের। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে পাওনা টাকা ফেরত চাওয়া সত্বেও ফেরত দেয়নি বাপ্পা। আর সেই আক্রোশ থেকেই বাপ্পাকে খুন করেছে সে, জেরায় জানায় আক্রম।

যদিও জেরায় আক্রম জানায় যে মুক্তিপণ চেয়ে ফোন করার আগেই বাপ্পাকে খুন করা হয়েছিল। তবে সে একা খুন করেছে নাকি অন্য কেউ আক্রমের সঙ্গে ছিল, তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom