Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

জনসভা থেকে ঘৃণাভরা ভাষণ, আজম খানকে তিন বছরের জেলের সাজা শোনালো আদালত


২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে ঘৃণাভরা ভাষণ দেওয়ার মামলায় সমাজবাদী পার্টির বর্ষীয়ান নেতা আজম খানকে তিন বছরের জেল এবং ২৫,০০০ টাকা জরিমানার সাজা শোনালো রামপুরের বিশেষ MP/MLA আদালত। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে প্রকাশ্য জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী এবং যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করেছিলেন। পাশাপাশি হিন্দুদের বিরুদ্ধে ঘৃণাভরা মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। 

উল্লেখ্য, রামপুরের মিলাক কোতোয়ালিতে ২০১৯ সালের ৯ই এপ্রিল তারিখে এক জনসভায় ভাষণ দিচ্ছিলেন আজম খান। সেই ভাষণে আজম খান বলেন যে মোদীর শাসনে দেশের মুসলিমদের উপরে জুলুম হচ্ছে। কিন্তু সেদিন আর বেশিদূরে নেই, যেদিন এর প্রতিশোধ নেওয়া হবে। নরেন্দ্র মোদী এবং যোগী আদিত্যনাথকে ক্রিমিনাল বলে ভাষণে উল্লেখ করেন আজম খান। করেনপাশাপাশি তৎকালীন জেলাশাসক অনজুনেয়া কুমার সিংহের বিরুদ্ধেও কুরুচিকর মন্তব্য করেন আজম খান। 

সেই ভাষণের ভিডিও ফুটেজ নির্বাচন কমিশনে জমা দিয়ে আজম খানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ জানান রামপুরের বিজেপি নেতা তথা বিখ্যাত আইনজীবী আকাশ সাক্সেনা। তিনি অভিযোগ করেন যে প্রকাশ্য জনসভায় উষ্কানীমূলক ভাষণ দিয়ে দাঙ্গা বাঁধানোর চেষ্টা করছেন আজম খান। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ভিডিও ফুটেজ খতিয়ে দেখার পর আজম খানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩A, ৫০৫-১ এবং the Representation of People Act 1951-এর ১২৫ ধারায় মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। 

কয়েক বছর মামলা চলার পর রামপুরের বিষেশ আদালত আজম খানকে দোষী সাব্যস্ত করেন।  তিন বছরের জেল এবং ২৫,০০০ টাকা জরিমানা করা হয় আজম খানকে। তবে এই রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে যাওয়ার রাস্তা খোলা থাকছে আজম খানের কাছে।

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom