Breaking Posts

6/trending/recent
Type Here to Get Search Results !

ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের ভাতা বাড়ানো হোক, দাবি জানালেন নাখোদা মসজিদের ইমাম

ছবি: নাখোদা মসজিদের ইমাম শফিক কাসেমী

দ্রব্যমূল্য বেড়েছে। আর সে কারণে মাত্র আড়াই হাজার টাকায় কিছুই হয়না। তাই ইমামদের ভাতা বাড়ানো হোক। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কাছে ইমামদের ভাতা বাড়ানোর জন্য দাবি জানালেন নাখোদা মসজিদের ইমাম মাওলানা শফিক কাসেমী এবং সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সম্পাদক মহম্মদ কামরুজ্জামান। তাদের দাবি, দিল্লীর রাজ্য সরকার যেভাবে ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের ভাতা দিচ্ছে, সেভাবে ভাতা দেওয়া হোক। 

গতকাল ১৯শে অক্টোবর, বুধবার রিপন স্ট্রিটের এক হোটেলে ইমাম এসোসিয়েশন এবং সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভায় নানা বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে নভেম্বর মাসে নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে এক বিরাট সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেই সভায় সারা রাজ্য থেকে ইমাম ও মুয়াজ্জিনরা উপস্থিত থাকবেন। সেই সভায় ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের বিভিন্ন দাবিদাওয়া তুলে ধরা হবে বলে জানানো হয়।

সভা শেষে নাখোদা মসজিদের ইমাম বলেন, ‛যেভাবে দ্রব্যমূল্য বেড়েছে, তাতে আড়াই হাজার বা এক হাজারে কিছুই হয়না। দিল্লী সরকার যেখানে ইমামদের ১৮ হাজার এবং মুয়াজ্জিনদের ১২ হাজার করে দিচ্ছে, সেখানে আমাদের রাজ্যে দেওয়া ভাতা অত্যন্ত কম। আমরা চাই, পশ্চিমবঙ্গেও দিল্লী সরকারের মতো ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের ভাতা দেওয়া হোক। 

শফিক কাসেমী আরও বলেন, ‛সংখ্যালঘুরা দু'হাত তুলে মমতা ব্যানার্জির সরকারকে ভোট দিয়েছে। তাই আমাদের অধিকার রয়েছে এই বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলার।’ শফিক কাসেমির মতই একই সুরে ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের ভাতা বাড়ানোর দাবি জানান মহম্মদ কামরুজ্জামান। তিনি বলেন, ‛২০১২ সালে ভাতা চালু হলেও ১০ বছর পেরিয়ে গেলেও ভাতা বৃদ্ধি হয়নি। আমাদের দাবি এই যে দিল্লী সরকারের মতো পশ্চিমবঙ্গের সরকার ওয়াকফ বোর্ড থেকে ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের ভাতা দিক। এছাড়াও, আমাদের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল যে জমি দিয়ে বাড়ি করে দেওয়া হবে। সেই প্রতিশ্রুতিও রক্ষা করা হয়নি।’

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Ads Bottom